শিরোনাম :
দেশকে ‘নব্য রাজাকার’মুক্ত করার হুঁশিয়ারি আ.লীগ নেতাদের বৃহস্পতিবার সারাদেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ কর্মসূচি ঘোষণা ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের আর কখনো পাঠদান করব না: সহকারী অধ্যাপক উম্মে ফারহানা আলিপুরে পুনর্বাসন নিশ্চিত করতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ দেবহাটার সরকারি কেবিএ কলেজ ও সোনালী ব্যাংক পিএলসি’র চুক্তি স্বাক্ষর রড-কুড়াল নিয়ে ঢামেকে ঢুকে আহত আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা দেবহাটায় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ বিষয়ক সভা ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক পুনঃনির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন কোটাবিরোধীদের হটাতে পুলিশের অ্যাকশন শুরু, টিয়ারগ্যাস নিক্ষেপ আন্দোলনকারীদের হটিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের দখলে

কে এই সেলিম প্রধান?

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ১ অক্টোবর, ২০১৯
  • ২১৫

জুয়া, অনলাইন ক্যাসিনো, মাদক, স্পা-পার্লার ও হোটেলে নারী সরবরাহ, সীমান্ত দিয়ে গরু পাচার, অবৈধভাবে পাথর নিষ্কাশন, অস্ত্র ব্যবসাসহ নানা ভয়ঙ্কর অপরাধে লিপ্ত তিনি। নাম তার সেলিম প্রধান।

বাংলাদেশে অনলাইনে ক্যাসিনো ব্যবসার কান্ট্রি হেড তিনি। একই সাথে ওয়ান্ডার্স ক্লাবের সহ-সভাপতি।

এছাড়া ক্যাসিনো ব্যবসা করে সম্প্রতি গ্রেফতার হওয়া বিসিবি পরিচালক লোকমান হোসেন ভূঁইয়ার ক্যাশিয়ার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করতেন এই সেলিম।

লোকমানের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার সেলিমকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

র‌্যাব সূত্রে জানা গেছে, সেলিম প্রধান বাংলাদেশে অনলাইন ক্যাসিনোর কান্ট্রি হেড। ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরুর পরপরই তাকে নজরদারিতে রাখা হয়েছিল। ক্যাসিনো ব্যবসা ছাড়াও চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ সীমান্ত দিয়ে অস্ত্র ও গরু চোরাচালানের সঙ্গে জড়িত ছিলেন সেলিম।

এছাড়া তিনি রাজধানীর বিভিন্ন স্পা, বিউটি পার্লার ও পার্টিতে ভিআইপিদের মনোরঞ্জনের জন্য তরুণী সরবরাহ করতেন। চারদলীয় জোট সরকারের সময় তারেক রহমান ও তার ব্যবসায়িক অংশীদার গিয়াস উদ্দিন আল মামুনের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠতা ছিল। তারেকের বিভিন্ন পার্টিতে তরুণী সরবরাহের কাজও করতেন এই সেলিম।

সিলেট থেকে অবৈধভাবে পাথর নিষ্কাশনের কাজও করতেন সেলিম। সেলিম প্রধানের ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের নাম প্রধান গ্রুপ। এই কোম্পানিরই একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান পি২৪ গেমিং (P24 Gaming)। জানা গেছে এই পি২৪ গেমিংয়ের মাধ্যমেই সেলিম বাংলাদেশে অনলাইন ক্যাসিনো ব্যবসা চালিয়ে আসছিল।

গুলশান-২’র ৯৯ নম্বর রোডের ১১/এ নং বাসায় প্রতিষ্ঠানটির কার্যালয়, সেখানেই সোমবার রাতে র‌্যাব প্রথম অভিযান শুরু করে। সেখান থেকে বিপুল পরিমাণ দেশি-বিদেশি মদ, নগদ টাকা ও বিদেশি মুদ্রা জব্দ করা হয়।

এরপর মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর বনানীতে সেলিম প্রধানের আরেকটি বাড়িতে অভিযান শুরু করা হয়। সোমবার রাত থেকেই বাসাটি ঘিরে রেখেছিলেন র‌্যাব সদস্যরা।

সেলিম প্রধান

সেলিম প্রধানের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই এই বাড়িতে অভিযান চালানো হয় বলে পরিবর্তন ডটকমকে জানান র‌্যাবে লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সিনিয়র সহকারী পরিচালক এএসপি মিজানুর রহমান।

প্রসঙ্গত, সোমবার দুপুরে অনলাইনে ক্যাসিনো পরিচালনার অভিযোগে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ব্যাংককগামী থাই এয়ারওয়েজ থেকে সেলিম প্রধানকে আটক করে র‌্যাব।

থাই এয়ারওয়েজের টিজি-৩২২ নম্বর ফ্লাইটটি ছাড়ার আগ মুহূর্তে বিজনেস ক্লাসের ওই যাত্রীকে সেখান থেকে আটক করে নামিয়ে আনে র‌্যাব।

র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশন্স) কর্নেল তোফায়েল মোস্তফা সরোয়ার পরিবর্তন ডটকমকে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘অনলাইনে ক্যাসিনো পরিচালনা করে আসছিলেন এই সেলিম প্রধান। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ফ্লাইট ছাড়ার আগমুহূর্তে তাকে আটক করা হয়।’

ক্যাসিনো থেকে অর্জিত আয় এই ব্যক্তি বিদেশে পাচার করে আসছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। পরে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে বলেও জানান র‌্যাবে এই কর্মকর্তা।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত ২০২১
Design and Developed by IT Craft in association with INTENT