শিরোনাম :
স্বর্ণ ছিনতাইয়ের নেতৃত্বে র‍্যাব কর্মকর্তা, গোয়ালঘরের মাটি খুঁড়ে ৪৮ ভরি উদ্ধার কওমি মাদ্রাসায় ছাত্রলীগকে সক্রিয় হওয়ার নির্দেশ শিক্ষামন্ত্রীর সাতক্ষীরায় ‘জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব ও সংকট সমাধানের উপায়’ শীর্ষক নাগরিক সংলাপ দেবহাটায় বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল দেবহাটায় ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ঢেউটিন বিতরণ ইসরায়েলের সামরিক স্থাপনা লক্ষ্য করে দফায় দফায় রকেট হামলা বিচারের আগেই কেন লোহার খাঁচায় দাঁড়াতে হবে: ড. ইউনূস দেবহাটায় দুর্নীতি প্রতিরোধ ও সচেতনতা বিষয়ক র‌্যালি দেবহাটায় প্রধান শিক্ষকদের লিডারশীপ প্রশিক্ষণ ১৫২ কোটি টাকা সুদ মওকুফ: সাবেক ভ্যাট কমিশনারের বিরুদ্ধে মামলা

নারী চিকিৎসকগণ দেশের সম্পদ-স্পিকার

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ১০০

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি হৃদরোগ চিকিৎসায় অধিক সংখ্যক নারী চিকিৎসক তৈরি, তাদের জন্য অনুকূল কর্মপরিবেশ সৃষ্টি ও অসংক্রামক রোগ সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, নারী চিকিৎসকগণ দেশের সম্পদ। হৃদরোগ চিকিৎসায় নারী চিকিৎসকদের আরও এগিয়ে আসতে হবে। তাঁরা নারীদের পাশাপাশি পুরুষদেরও স্বাস্থ্য সেবা দিতে সক্ষম।
বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) ঢাকার মিরপুরে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতাল অ্যান্ড রিসার্চ ইনস্টিটিউট অডিটরিয়ামে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন আয়োজিত ‘উইমেন অ্যাজ ওয়ান, বাংলাদেশ চ্যাপ্টার’-এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি প্রধান অতিথির বক্তৃতা করছিলেন।

স্পিকার বলেন, সরকারের নানামুখী উদ্যোগের ফলে বাংলাদেশ সংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণে সফল হয়েছে। জীবনমান উন্নয়নের সাথে সাথে জীবন যাপন প্রণালীতে পরিবর্তন আসাসহ বিভিন্ন কারণে সংক্রামক বিভিন্ন রোগ বেড়ে চলেছে। সে কারণে এ সকল রোগের চিকিৎসায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক তৈরি করা প্রয়োজন। মেধা, দক্ষতা ও যোগ্যতার স্বাক্ষর রেখে নারী চিকিৎসকগণ এগিয়ে যাচ্ছেন বলে স্পিকার উল্লেখ করেন।
তিনি বলেন, নারীদের মৃত্যুর অন্যতম প্রধান কারণ হৃদরোগ। হৃদরোগের সেবা নিতে আসা নারীদের সংখ্যা অনেক কম। এর পিছনে অন্যতম কারণ অজ্ঞতা, অসচেতনতা এবং পুরুষ হৃদরোগ বিশেষজ্ঞদের কাছে চিকিৎসা নিতে সংকোচ বোধ করা। এজন্য প্রতিটি হাসপাতালে নারী হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ নিয়োগ দেয়া জরুরী। নারী চিকিৎসকদের সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো এবং হৃদরোগ চিকিৎসা সংক্রান্ত উচ্চতর প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা প্রয়োজন বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

স্পিকার বলেন,বাংলাদেশ আজ নারী উন্নয়ন সকল ক্ষেত্রে দৃশ্যমান । এদেশের নারীরা অনেক নতুন ও ঝুঁকিপূর্ণ পেশায় কাজ করছেন। তৃণমূলে স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে সামগ্রিক পরিকল্পনা গ্রহন করেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারা দেশে ১২ হাজারের অধিক কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করেছেন। কমিউনিটি ক্লিনিক হতে ৩২ ধরনের ওষুধ বিনামূল্যে সরবরাহ করা হচ্ছে, যা তৃণমূলে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে ভূমিকা রাখবে।

তিনি বলেন, সকল প্রতিকূলতা জয় করে অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করতে পারলে হৃদরোগের ন্যায় চিকিৎসায় নারীরা এগিয়ে আসতে উৎসাহী হবে। কেননা শুধু বাংলদেশে নয় সারা বিশ্বে হৃদরোগের চিকৎসায় নারী চিকিৎসকের সংখ্যা অপ্রতুল। এ ক্ষেত্রে নারীবান্ধব পরিবেশ, আয় বৈষম্য নিরসন ও জনসচেতনতা বৃদ্ধির ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

ড. শিরীন শারমিন বলেন, ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ-এর উদ্যোগে নারী হৃদরোগ বিশেষজ্ঞগণের সমন্বয়ে একটি সচেতনতামূলক ফোরাম উইমেন অ্যাজ ওয়ান, বাংলাদেশ চ্যাপ্টার গঠন করা হয়েছে, যা এক অনন্য উদ্যোগ। ফোরাম বাংলাদেশে নারী হৃদরোগী এবং নারী হৃদরোগ বিশেষজ্ঞগণের স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে।

এ উদ্যোগের ফলে তৃণমূল পর্যায়ে নারীগণ হৃদরোগ প্রতিরোধ ও চিকিৎসা গ্রহণে অধিকতর সচেতন হবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। উইমেন অ্যাজ ওয়ান ফোরাম নারীদের হৃদরোগ চিকিৎসায় নব দিগন্ত উন্মোচন করবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অব বাংলদেশ এর প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি, জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব.) আব্দুল মালিকের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অপরাজিতা হক এমপি।
এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উইমেন অ্যাজ ওয়ান বাংলদেশ চ্যাপ্টারের আহবায়ক অধ্যাপক ফজিলা তুন নেসা মালিক।
অনুষ্ঠানে সারাদেশ থেকে আসা নারী হৃদরোগ চিকিৎসকগণ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত ২০২১
Design and Developed by IT Craft in association with INTENT